33 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
সন্ধ্যা ৭:৩৩ | ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
শিল্পবর্জ্য আর তলদেশে পলি জমে নাব্যতা হারাচ্ছে সুতাং নদী
পরিবেশ দূষণ

শিল্পবর্জ্য আর তলদেশে পলি জমে নাব্যতা হারাচ্ছে সুতাং নদী

শিল্পবর্জ্যের কালো জমাটবাঁধা ময়লা আর নদী তলদেশে পলি জমে নদী যেমন দূষিত হচ্ছে তেমনি নাব্যতা হারাচ্ছে। এতে কযেকটি জায়গায় দেখা যায় নদীতে পলি জমে নদীর পানি শুকিয়ে গেছে।

নদীটি শুকিয়ে যাওয়ার ফলে ওই নদীর পানিতে সেচ নির্ভর ইরি বোরো ধানের জমিতে সেচ দিতে না পারায় হুমকির মুখে পড়েছে ফসলি জমি। পানির অভাবে কৃষকরা ইরি বোরো ধান চাষে দিন দিন আগ্রহ হারাচ্ছেন। এক সময়ের উত্তাল সুতাং নদীকে কেন্দ্র করে লাখাই উপজেলায় গড়ে উঠেছিল হাটবাজার। বাণিজ্যিক প্রাণকেন্দ্র খ্যাত বুল্লা বাজারসহ কয়েকটি হাটবাজারে সুতাং নদীর পানির ওপর দিয়ে লঞ্চযোগে ভৈরব থেকে নিয়ে আসা হতো পণ্যসামগ্রী।

উপজেলার অধিকাংশ জেলে নদী থেকে মাছ আহরণ করে জীবিকা নির্বাহ করত। বর্তমানে আগের মতো নদী থেকে মাছ আহরণ করতে না পারায় জেলেরা পরিবার পরিজন নিয়ে কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন। কৃষক, জেলে ও এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরে নদীটি খননের দাবি করে এলেও তা আলোর মুখ দেখেনি। সরেজমিন দেখা যায়, লাখাইর সুতাং অংশে শাখাতি, ধলেশ্বরী, বেলেশ্বরীর কানাই, মনিখাই, বলভদ্র ও মন্দিরকলা খালসহ নদীগুলো ভরাট হয়ে অস্তিত্ব হারিয়ে ফেলেছে।

উপজেলার করাব ইউনিয়নের ফুলতলি গ্রামের ৭০ বছরের বৃদ্ধ কৃষক আরব আলী জানান, শিল্পবর্জ্যে নদীর তলদেশ ভরাটের পাশাপাশি তীব্র দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। কৃষি কাজের জন্য নদীর পানি ব্যবহার করা যাচ্ছে না। পানির অভাবে এলাকার ইরি বোরো ধানি জমি চাষাবাদ করতে না পারায় আমাদের খাদ্য সংকটে ভুগতে হবে।

একই গ্রামের সুশান্ত পাল (২০) বলেন, নদী থেকে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করত জেলেরা। কালো কুচকুচে পানিতে এখন আর মাছ পাওয়া যায় না। ফলে শত শত জেলে বেকার হয়ে পড়েছে।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার তোফাজ্জল সোহেল বলেন, সদর ও মাধবপুর উপজেলায় কৃষিজমির ওপর অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন কলকারখানা। এসব কলকারখানার বিষাক্ত বর্জ্য আশপাশের খাল ও নদীতে ফেলার ফলে ভয়াবহ শিল্পদূষণ হচ্ছে। ভরাট হচ্ছে নদীর তলদেশ। এতে মানুষ শ্বাসকষ্ট, চর্মরোগসহ জটিল রোগে আক্রান্তসহ পানির অভাবে ফসল উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। পানি কালো ও দুর্গন্ধময় হয়েছে। নদীতে আর মাছ পাওয়া যায় না, নদীর পানি ব্যবহারকারীরা পানি সংকটে ভুগছেন। তিনি অবিলম্বে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ এবং সুতাং নদী খননসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। উপজেলাবাসীও সুতাং নদী খনন করে শিল্প বর্জ্যরে দূষণ থেকে রক্ষার দাবি জানিয়েছেন।

 

“Green Page” কে সহযোগিতার আহ্বান

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত