26 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
রাত ১২:৪২ | ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
রাজত্ব হারাচ্ছে মোনার্ক প্রজাপতির সংখ্যা
পরিবেশ ও জলবায়ু প্রাকৃতিক পরিবেশ

রাজত্ব হারাচ্ছে মোনার্ক প্রজাপতি

রাজত্ব হারাচ্ছে মোনার্ক প্রজাপতি

এ বছর মেক্সিকো পৌঁছানো মোনার্ক প্রজাপতির সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় প্রায় চার ভাগের এক ভাগের বেশী পরিমান (১/৪ভাগ) কমেছে। শীত মৌসুমে হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে উত্তর প্রান্ত থেকে দক্ষিণে ভ্রমন করে তারা আর এখন তাদের জনসংখ্যা কমে যাওয়া বিশাল অঞ্চলের পরিবেশ ও বাস্তুসংস্থানের জন্যও বড় হুমকি হয়ে দাড়িয়েছে।



বিশ্বে সবচেয়ে দীর্ঘপথ পাড়ি দেয়া পরিযায়ী প্রাণীদের অন্যতম মোনার্ক প্রজাপতি৷ ছোট পাখায় ভর করে প্রতিবছর মেক্সিকো থেকে পাড়ি জমায় এরা ক্যানাডাতে৷ মাঝে অতিক্রম করে দুই হাজার মাইল বা তিন হাজার ২২০ কিলোমিটার পথ।

কমলা ও কালো রঙের নকশা আর সাদা ফোঁটায় মোনার্ক প্রজাপতি খুব সহজেই সবার থেকে আলাদা করা যায়৷ তার উপর যেখানে যায় সেখানে মোটামুটি বড়সড় ঝাঁক বেধেই থাকে৷ ক্যানাডা, মেক্সিকো ও যুক্তরাষ্ট্রে এদের বসবাস৷

গরমের মৌসুমটা কাটে উত্তর সীমান্তে তারপর গ্রীষ্মের শেষ কিংবা শরতের প্রথমটা শুরু হয় দীর্ঘযাত্রার মাধ্যমে। মধ্য ও উত্তর অ্যামেরিকা আর দক্ষিণ ক্যানাডা থেকে ঝাঁক বেধে তারা রওনা হয় ফ্লোরিডা বা মেক্সিকোর উদ্দেশ্যে তারপর শীতকালটা সেখানেই কাটে।

মেক্সিকোর এল রোজারিও অভয়াশ্রমে বর্তমানে কমলা-কালোর প্রজাপতির সমাহার৷ নভেম্বর মাস থেকে আগামী মার্চ এর শেষ পর্যন্ত এখানেই রাজত্ব করবে মোনার্কের এই ঝাঁকটি।

এবছর প্রজাপতিদের আগমনে ভাটা নেমেছে৷ শীতযাপনে আসা প্রজাপতির সংখ্যা আগের বছরের চেয়ে প্রায় ২৬ ভাগ কমেছে৷ মেক্সিকোর কমিশন ফর ন্যাশনাল প্রোটেকটেড এরিয়াস ও দ্য ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফান্ড হিসাব করে এমন তথ্য জানিয়েছে৷

গত ডিসেম্বরে অভয়াশ্রমের দুই দশমিক আট হেক্টর অঞ্চল ছিল মোনার্কদের রাজত্বে৷ এবার শীতে সেটি নেমে এসেছে দুই দশমিক এক হেক্টরে৷ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফান্ড৷



কেন মোনার্কদের সংখ্যার এমন সংকোচন? ২টি কারণের কথা বলা হচ্ছে৷ ১ম কারন হিসাবে মনে করা হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তন, যা তাদের ভ্রমণে প্রভাব ফেলছে আর ২য় কারণ হতে পারে যুক্তরাষ্ট্রে তাদের প্রজননস্থল হারানো, যা বংশবিস্তারে বাধা তৈরি করছে৷

মোনার্ক প্রজাপতিদের সংখ্যা যে হঠাৎ কমে গেছে বিষয়টি কিন্তু মোটেই তেমন নয়৷ যুক্তরাষ্ট্র সরকারের দ্য ফিশ এন্ড ওয়াইল্ডলাইফ সার্ভিস এর হিসাব অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলে ১৯৯৭ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে মোনার্কের সংখ্যা প্রায় ৯৭ ভাগ কমে মাত্র তিশ হাজারে এসে দাঁড়িয়েছে৷ একই সময়ের ব্যবধানে পূর্ব অংশে কমেছে আরো ৮৪ ভাগ

বিপদাপন্ন প্রাণী হিসেবে মোনার্ক বিবেচিত হবে কিনা তার পর্যবেক্ষণ তালিকায় গত বছরের ডিসেম্বরে প্রজাপতিটিকে অন্তর্ভুক্ত করেছে মার্কিন সরকারি সংস্থাটি। কৃষি, নগরায়ন এবং অপরিকল্পিত কীটনাশকের ব্যবহার আর সেই সাথে জলবায়ু পরিবর্তন তাদের সংখ্যা কমার কারণ বলে মনে করছে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের দ্য ফিশ এন্ড ওয়াইল্ডলাইফ সার্ভিস প্রতিষ্ঠানটি।

আট থেকে নয় মাসের জীবন আর হাজার মাইল পাড়ি দেয়া পথে মোনার্ক বহু জীব বৈচিত্র্যকে টিকিয়ে রাখছে৷ বিশাল অঞ্চলের অসংখ্য উদ্ভিদের পরাগায়ন আর খাদ্যশৃঙ্খল তাদের উপর নির্ভরশীল। মোনার্কের সংখ্যা কমে যাওয়া মানে প্রকৃতির এই আন্তসম্পর্কের জাল ছিড়তে শুরু করা৷ যুক্তরাষ্ট্রের পরিবেশবাদী সংগঠনগুলো তাই মোনার্ক রক্ষায় জরুরি পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়ে আসছে সরকারের কাছে৷

“Green Page” কে সহযোগিতার আহ্বান

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত