28 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
সকাল ১০:৪০ | ২৬শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
বিষাক্ত বায়ু দূষণ প্রতিরোধে ভারতীয় রাজধানীতে প্রচার চালানো হচ্ছে
পরিবেশ পরিক্রমা পরিবেশ রক্ষা রহমান মাহফুজ

বিষাক্ত বায়ু দূষণ প্রতিরোধে ভারতীয় রাজধানীতে প্রচার চালানো হচ্ছে

বিষাক্ত বায়ু দূষণ প্রতিরোধে ভারতীয় রাজধানীতে প্রচার চালানো হচ্ছে

রহমান মাহফুজ, প্রকৌশলী, পরিবেশ কর্মী, পরিবেশ এবং পরিবেশ অর্থনৈতিক কলামিষ্ট, সংগঠক এবং সমাজসেবী।

দিল্লির আকাশ কুঁয়াশা এবং ধূলিকণায় আবদ্ধ থাকতে দেখা যাচ্ছে
দিল্লির আকাশ কুঁয়াশা এবং ধূলিকণায় আবদ্ধ থাকতে দেখা যাচ্ছে।

আসন্ন শীতের আগে দিল্লির বায়ু দূষণের মাত্রা রোধ করার প্রয়াসে নয়াদিল্লী কর্তৃপক্ষ সোমবার (০৬/১০/২০২০ তারিখ) এ একটি দূষণবিরোধী অভিযান শুরু করেছে। সাধারণত শীতকালে দিল্লীর আকাশ কুঁয়াশা, ধুলিকণা এবং বিষাক্ত গ্যাসে আবদ্ধ থাকে।

প্রচারে জনগনকে সতর্ক করা হচ্ছে যে নোংরা বায়ু করোনাভাইরাস মহামারীকে আরও বিপজ্জনক করে তুলতে পারে।

রাজধানীর শীর্ষ নির্বাচিত নেতা দিল্লীর মূখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেছেন, সরকার ধুলোবিরোধী অভিযান শুরু করবে, কৃষির উচ্ছিষ্ট পোড়ানো ধোঁয়া হ্রাস

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেছেন যে, দীর্ঘায়িত সময়ের মধ্যে উচ্চ বায়ু দূষণের মাত্রা বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহর নয়াদিল্লিতে বসবাসকারী মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে হ্রাস করছে, কারণ বায়ু দূষণ করোনাভাইরাসকে আরও সংবেদনশীল করে তুলেছে।

প্রাথমিক গবেষণাগুলি আরও পরামর্শ দিয়েছে যে উচ্চ স্তরের বায়ু দূষণ ভাইরাল সংক্রমণকে আরও বিপজ্জনক করে তুলতে পারে।

এটি অনুমান করা হয় যে বায়ু দূষণজনিত রোগের কারণে প্রতি বছর এক মিলিয়নেরও বেশি ভারতীয় মারা যান। গত ০৬/১০/২০২০ খ্রি: তারিখ পর্যন্ত নয়াদিল্লিতে করোনভাইরাসে ২৮৫,১০৩ জন আক্রান্ত হয়েছে, এর মধ্যে ৫,৫১০ জন মারা গেছে।

নয়াদিল্লীর রাস্তায় দিনের বেলায় একজন ট্রাফিক পুলিশকে বায়ু দূষণ হতে রক্ষায় মাক্স পড়া
নয়াদিল্লীর রাস্তায় দিনের বেলায় একজন ট্রাফিক পুলিশকে বায়ু দূষণ হতে রক্ষায় মাক্স পড়া অবস্থায় দেখা যাচ্ছে। Image Courtesy: Outlook India.

বহু ভারতীয় শহরে বায়ু দূষণের দরূণ শ্বাস নিতে মানুষের কষ্ট হয়, তবে নয়াদিল্লি এদের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে। শীতকালগুলোতে দিল্লীতে স্বাস্থ্য সমস্যা নাঁজুক আকার ধারণ করে, যখন শহরটি একটি বিষাক্ত ধোঁয়ায় আবৃত থাকে যা আকাশকে অস্পষ্ট করে তোলে এবং সূর্যের আলোকে ভূপৃষ্ঠে আসতে বাধা দেয়।



দূষণের মাত্রা আরও বেড়ে যায় যখন পার্শ্ববর্তী রাজ্যগুলোর কৃষি অঞ্চলের কৃষকরা ফসল কাটার পরে তাদের জমি পরিষ্কার করতে এবং পরবর্তী ফসলের মৌসুমের জন্য জমি প্রস্তুত করার কাজে কৃষি উচ্ছিষ্টে (ফসল কাটার পর ফসলের মাঠে ফসলের যে অবশিষ্টাংশ থাকে- খড়ের নীচের অংশ) আগুন ধরিয়ে দেয়।

দিল্লীর নিকটবর্তী উত্তর প্রদেশের এক কৃষককে মাঠে ফসল কাটার পর জমি পরিস্কার করার জন্য ফসলের উচ্ছিষ্ট নিন্মাংশে আগুন দিতে দেখা যাচ্ছে
দিল্লীর নিকটবর্তী উত্তর প্রদেশের এক কৃষককে মাঠে ফসল কাটার পর জমি পরিস্কার করার জন্য ফসলের উচ্ছিষ্ট নিন্মাংশে আগুন দিতে দেখা যাচ্ছে। Image courtesy Hindustan Times
দিল্লীর পাশ্ববর্তী রাজ্য হরিয়ানায় ফসলের নিন্মাংশ পোঁড়ানোর চিত্র যার ধোঁয়া দিল্লীর আকাশে বায়ু দূষনের একটি কারণ
দিল্লীর পাশ্ববর্তী রাজ্য হরিয়ানায় ফসলের নিন্মাংশ পোঁড়ানোর চিত্র যার ধোঁয়া দিল্লীর আকাশে বায়ু দূষনের একটি কারণ। Image Courtesy: Benega Swachh India
নয়াদিল্লির সেন্ট্রাল পার্কে অ্যান্টি-স্মোগ বন্দুকটি রাখা হয়েছে
৫ অক্টোবর, ২০২০, ভারতের নয়াদিল্লির সেন্ট্রাল পার্কে রাখা একটি অ্যান্টি-স্মোগ বন্দুকের পিছনে কবুতররা সোমবার উড়ে বেড়ানোর দৃশ্য

অ্যান্টি-স্মোগ বন্দুক (Anti-smog gun)এমন একটি ডিভাইস যার দ্বারা বায়ু দূষণ হ্রাস করতে বায়ুমণ্ডলে পরিস্কার জলের ফোঁটা স্প্রে করা হয়।

এটি একটি জলের ট্যাঙ্কের সাথে সংযুক্ত থাকে এবং একটি গাড়ীতেও আরোহণ করা যায়। ডিভাইসটি বায়ুতে জলের ফোটা ফোটা ছড়িয়ে দেওয়ার ফলে বায়ুর মধ্যে ভাসমান ধুলো- বালি এবং অন্যান্য বস্তুর কণা জলে ভিজে মাটিতে পড়ে যায়, ফলে বায়ু পরিস্কার হয়।

৫ অক্টোবর ২০২০ তারিখে ভারতের নয়াদিল্লির সেন্ট্রাল পার্কে অ্যান্টি-স্মোগ বন্দুকটি রাখা হয়েছে।
An সোমবার, ৫ অক্টোবর ২০২০ তারিখে ভারতের নয়াদিল্লির সেন্ট্রাল পার্কে অ্যান্টি-স্মোগ বন্দুকটি রাখা হয়েছে। (AP Photo/Manish Swarup)
ভারতের নয়াদিল্লির সেন্ট্রাল পার্কে স্থাপিত একটি অ্যান্টি-স্মোগ বন্দুকের সামনে
সোমবার, ৫ অক্টোবর ২০২০ তারিখে কোনও এক ব্যক্তি করোনা ভাইরাস বিরুদ্ধে সাবধানতা হিসাবে একটি মুখোশ পড়ে ভারতের নয়াদিল্লির সেন্ট্রাল পার্কে স্থাপিত একটি অ্যান্টি-স্মোগ বন্দুকের সামনে দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন (AP Photo/Manish Swarup)

 

যানবাহন ও শিল্প হতে কার্বন নির্গমন, ধর্মীয়, সামাজিক বিভিন্ন উৎসব গুলিতে পটকা ফুটানো এবং নির্মাণ কাজের ধুলাবালি শীতে একত্রিত হয়ে তীব্র বায়ু দূষণের সৃষ্টি হয়ে জনস্বাস্থ্যের সঙ্কটকে আরও বাড়িয়ে তোলে।

জ্বালানী তেলের গাড়ীর বায়ু দূষণ
জ্বালানী তেলের গাড়ীর বায়ু দূষণ।
খোলা আকাশের নীচে মিউনিসিপ্যালটির আবর্জনা পোঁড়ানোর ফলে বায়ু দূষণ।
খোলা আকাশের নীচে মিউনিসিপ্যালটির আবর্জনা পোঁড়ানোর ফলে বায়ু দূষণ।

নয়াদিল্লি-ভিত্তিক গ্রুপ সেন্টার ফর সায়েন্স অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টের নির্বাহী পরিচালক এবং একজন বায়ু দূষণ বিশেষজ্ঞ অনুমিতা রায়চৌধুরী বলেছেন, রাজধানীর খারাপ বায়ু মানের কারণগুলি সুপরিচিত,এগুলির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা উচিৎ।

তবে তিনি বলেছেন, বায়ুর গুণগত মান উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপগুলি সঠিক ভাবে নেয়া হচ্ছে না। তিনি বলেন, “এটি রকেট বিজ্ঞান নয়।”

অর্থাৎ তিনি বলতে চেয়েছেন ইহা রকেটের মত হঠাৎ কার্যকর হবে না, বায়ু দূষণ প্রতিরোধে সম্ভাব্য সকল পদক্ষেপ গ্রহন করা হলে ধীরে ধীরে বায়ু দূষণ মুক্ত হবে। ভায়ু দূষণ যেমন একদিনে ঘটেনি, দীর্ঘ দিন, দীর্ঘ কালের দূষণ প্রক্রিয়ার পরিনতি, তেমনি ইহাকে দূষণমূক্ত করতেও সময়ের প্রয়োজন হবে।

বিগত কয়েক বছর যাবত ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লীতে প্রায়শই রাস্তায় গাড়ি সংখ্যা সীমাবদ্ধ করে, বিশাল অ্যান্টি-স্মোগ বন্দুক ব্যবহার করে এবং নির্মাণ কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়ে বায়ু দূষণ হ্রাসের চেষ্টা করা হয়েছে।

কিন্তু প্রতিবেশী রাজ্য সরকারগুলি সহযোগিতা করতে ব্যর্থ হওয়ায় এই পদক্ষেপগুলি খুব একটা কার্যকর হয়নি। কারণ নয়াদিল্লীর প্রতিবেশী রাজ্য হরিয়ানা ও উত্তর প্রদেশ এর কৃষি জমির কৃষি বর্জ্য খোলা আকাশের পোঁড়ানো (agriculture byproduct’s open firing) এর কারনেই দিল্লীর বায়ু দূষণের প্রধান কারণগুলোর মধ্যে একটি।

২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে বায়ু দূষনের ফলে নয়াদিল্লি বেশ কয়েক দিন ধরে একটি গাঢ় হলুদ রংয়ের ধোঁয়াশায় আবদ্ধ ছিল এবং বায়ু দূষণ রেকর্ড উচ্চ স্তরের উঠেছিল, ফলে স্কুলগুলি বন্ধ করতে হয় , বিমান বন্দর বন্ধ করতে হয়।

এমনকি বায়ু দূষণ এমন এক পর্যায়ে পৌঁছে যে যার ফলে ঐ সময় নয়াদিল্লীতে চলমান ভারত- বাংলাদেশের টি২০ ম্যাচ এবং ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে ভারত- শ্রীলংকা টেস্ট খেলায় মারাত্বক বিঘ্ন ঘটেছিল ।

২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাস, একজন প্যারামেডিক শ্বাসকষ্টের অভিযোগের পরে শ্রীলঙ্কার লাহিরু গামাজের সাথে কথা বলছেন
২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাস, একজন প্যারামেডিক শ্বাসকষ্টের অভিযোগের পরে শ্রীলঙ্কার লাহিরু গামাজের সাথে কথা বলছেন। Photograph: Altaf Qadri/AP
২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাস, শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দীনেশ চান্দিমাল একটি মুখোশ পরে দিল্লীর পিরোজশাহী কোটলা স্টেডিয়ামে ডিসেম্বর ২০১৯ এ বায়ু দূষণ জনিত কারণে দিতে দেখা যাচ্ছে
২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাস, শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দীনেশ চান্দিমাল একটি মুখোশ পরে দিল্লীর পিরোজশাহী কোটলা স্টেডিয়ামে ডিসেম্বর ২০১৯ এ বায়ু দূষণ জনিত কারণে দিতে দেখা যাচ্ছে। Photograph: Altaf Qadri/AP

Source: PHY.ORG, Associated Press (AP), AP World News, AP Business

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত