29 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
রাত ৪:৩২ | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
বাজছে মহাবিপদঘণ্টা, এই সপ্তাহেই Greenland-এর বরফগলা পানিতে ডুবতে চলেছে Florida
পরিবেশ বিজ্ঞান পরিবেশ বিশ্লেষন

বাজছে মহাবিপদঘণ্টা !! ১২ গিগাটন বরফগলা পানিতে ডুবতে চলেছে ফ্লোরিডা

বাজছে মহাবিপদঘণ্টা !! ১২ গিগাটন বরফগলা পানিতে ডুবতে চলেছে ফ্লোরিডা

গ্রিনল্যান্ড এর দ্রুত বরফ গলার প্রেক্ষিতে বিপদ একেবারে কাছাকাছি। চলতি সপ্তাহেই তা ধেয়ে আসছে বলে ধারণা করা যাচ্ছে। বেলজিয়ামের এক বিশ্ববিদ্যালয়ের সমীক্ষা বলছে, গ্রিনল্যান্ড (Greenland) অর্থাৎ মেরুবলয়ের বরফগলন এতটাই দ্রুত হারে ঘটবে যে, আমেরিকার ফ্লোরিডা প্রায় ২ ইঞ্চি জলের নিচে ডুবে যাবে। হিসেব অনুযায়ী, প্রায় ১২ গিগাটন বরফ গলতে পারে এই অল্প সময়ের মধ্যে।



সমীক্ষকদের হিসেব আরও বলছে, শুধুমাত্র গত ২৮ জুলাই বুধবারই গলেছে ২২ গিগাটন বরফ। ২০১২, ২০১৯ এর পর এই প্রথম একসাথে গ্রিনল্যান্ডে এত পরিমাণ বরফগলনের রেকর্ড তৈরি হল।

এত পরিমাণ বরফ পানিতে পরিণত হওয়ার কারণে উত্তর গ্রিনল্যান্ডের তাপমাত্রা একলাফে বেড়েছে অনেকটা। ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পেরিয়ে তা পৌঁছেছে ২৩.৪ ডিগ্রিতে, যা গ্রীষ্মের সাধারণ তাপমাত্রার প্রায় দ্বিগুণ।

বেলজিয়ামের জলবায়ু বিশেষজ্ঞ জেভিয়ার ফেটওয়েস জানাচ্ছেন, এর আগে তুষারপাতের সময় অন্তত ১০ গিগাটন বরফ জমাট বেঁধে গিয়েছিল। সেজন্য গলনের ভাগ ততটা বেশি প্রভাব ফেলতে পারেনি।

উষ্ণায়নের প্রভাবে মেরু এলাকার আবহাওয়ায় যে ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে, তা নিয়ে বিন্দুমাত্র সংশয় নেই। কিন্তু সেই বদল কীভাবে ঘটছে এবং কী কী ঘটছে, সেটাই এই মুহূর্তে গবেষণার বিষয় পরিবেশ বিজ্ঞানীদের কাছে। সেই গবেষণা অনুযায়ী, মেরুপ্রদেশের সাগরের উপর উষ্ণ হাওয়া এমনভাবে জমছে, যা বরফগলনের পক্ষে আদর্শ। সম্প্রতি তারই প্রভাবে এই পরিমাণ তুষার তরলে পরিণত হয়ে যাচ্ছে, যা ফ্লোরিডাকে (Florida) ভাসিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট।

আন্টার্কটিকার পর গ্রিনল্যান্ডই মেরুপ্রদেশের সেই জায়গা, যা স্থায়ীভাবে তুষার চাদরে আবৃত থাকে। শুধু তাই নয়, বিশ্বের ৭০ শতাংশ টাটকা পানি সরবরাহ করে এখানকার গলে যাওয়া বরফ।



পরিবেশ বিজ্ঞানীদের গবেষণা বলছে, ১৯৯০ সাল থেকে বিশ্ব উষ্ণায়নের (Global warming) জেরে এখানকার বরফ গলতে শুরু করে। ২০০০ সালে সেই গলনের যে হিসেব পাওয়া গিয়েছিল, সম্প্রতি গলনের হার তার থেকে প্রায় ৪ গুন।

অর্থাৎ মাত্র ২০ বছরেই গলন হয়েছে দ্রুত হারে। এই হারে গলন চলতে থাকলে গ্রিনল্যান্ডে সমস্ত তুষারগলনের পর সমুদ্রের পানিতলের উচ্চতা প্রায় ৬ থেকে ৭ মিটার বেড়ে যাবে।

“Green Page” কে সহযোগিতার আহ্বান

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত