31 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
রাত ১:৩৩ | ১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার গুরুত্বপূর্ণ জানালায় পরিণত হয়েছে চীন
জলবায়ু

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার গুরুত্বপূর্ণ জানালায় পরিণত হয়েছে চীন

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার গুরুত্বপূর্ণ জানালায় পরিণত হয়েছে চীন

চীনের প্রকৃতি ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের আয়োজিত নিয়মিত এক সাংবাদিক সম্মেলন থেকে জানা গেছে, চীনের কার্বন নির্গমন ট্রেড এক্সচেঞ্জ চালু হওয়ার এক বছরে এর পরিচালনা-ব্যবস্থা মোটামুটি স্থিতিশীল রয়েছে। যা ইতোমধ্যে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার গুরুত্বপূর্ণ জানালায় পরিণত হয়েছে।

কার্বন নির্গমন ট্রেড মানে শিল্প প্রতিষ্ঠানকে সরকার যে কার্বন নির্গমনের পরিমাণ নির্ধারণ করে দেয়, তাকে পণ্য হিসেবে বাজারে বিক্রি ও ক্রয় করা। বাজারের আচরণের মাধ্যমে গ্রিন হাউজ গ্যাস নির্গমনের মোট পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করা যায়। শিল্প প্রতিষ্ঠানের উচিত অনুমোদিত পরিমাণের মধ্যে গ্রিনহাউজ গ্যাস নির্গমন করা।



যদি তাদের অনুমোদিত পরিমাণ নির্গমন শেষ হয়, তাহলে উত্পাদন বন্ধ করতে হবে। তা ছাড়া যে প্রতিষ্ঠানের অতিরিক্ত কার্বন নির্গমনের সুযোগ আছে, তেমন প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে কিছু পরিমাণ কিনতে হবে।

এভাবে যে প্রতিষ্ঠান বেশি কার্বন নির্গমন করতে চায়, তাদের বেশি খরচ করতে হবে। আর যে প্রতিষ্ঠানের নির্গমন কম হবে, সেসব প্রতিষ্ঠান বাজারের ‘বোনাস’ লাভ করে।

গত বছরের ১৬ জুলাই চীনের কার্বন নির্গমন ট্রেড এক্সচেঞ্জ বাজার বেইজিং, শাংহাই ও উহান শহরে চালু হয়েছে। এর মাধ্যমে বিশ্বের বৃহত্তম কার্বন নির্গমন ট্রেড বাজার চালু হয়। এই বাজারের কেন্দ্র শাংহাইয়ে।

আর কার্বন নির্গমনের পরিমাণ নিবন্ধনের ব্যবস্থা হু পেই প্রদেশের উ হান শহরে। প্রতিষ্ঠানগুলো হু পেই প্রদেশে অ্যাকাউন্টে নিবন্ধ করে, শাংহাই শহরে ট্রেড করে। দুটি স্থান যৌথভাবে দেশের কার্বন নির্গমন ট্রেড সিস্টেম ব্যবস্থাপনা করে।

চীনের কার্বন নির্গমন বাজার চালু হওয়ার প্রথম দফায় বিদ্যুত্ উত্পাদন খাতে জড়িত কার্বন নির্গমনকারী ২১৬২টি প্রতিষ্ঠান এই ব্যবস্থায় অন্তর্ভুক্ত হয়। এতে বছরে ৪.৫ বিলিয়ন টন কার্বন ডাইঅক্সাইডের নির্গমন পরিমাণ নির্ধারণ করা হয়। যা বিশ্বে সবচেয়ে বড় আকারের কার্বন নির্গমন বাজার।

চীনের কার্বন নির্গমন বাজার হল ‘চূড়ান্ত নির্গমন’ এবং ‘কার্বন নিরপেক্ষতার’ লক্ষ্য বাস্তবায়নের গুরুত্বপূর্ণ পদ্ধতি। যা সবুজ ও নিম্ন কার্বন নির্গমন উন্নয়ন জোরদার করার গুরুত্বপূর্ণ চালিকাশক্তি।



চালু হওয়ার এক বছরে বাজারের পরিচালনা মোটামুটি স্থিতিশীল ছিল। কার্বন বাজারের উত্সাহ এবং নিয়ন্ত্রণের ভূমিকা রয়েছে। বাজার ব্যবস্থার মাধ্যমে প্রথমবারের মত কার্বন নির্গমন কমানোর দায়িত্ব প্রতিষ্ঠানের কাঁধে দেয়া হয়েছে।

শাংহাই পরিবেশ ও জ্বালানি ট্রেড এক্সচেঞ্জের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত বুধবার পর্যন্ত, চীনের কার্বন বাজারে কার্বন নির্গমন বিনিময় হয়েছে ১৯.৪ কোটি টন। যার মোট মূল্য ৮.৪৯ বিলিয়ন ইউয়ান।

বিশ্বের আবহাওয়া উষ্ণ হওয়া এবং পরিবেশ অবনতি হওয়ার অন্যতম কারণ- কার্বন ডাইঅক্সাইড নির্গমন। যা মানবজাতির জন্য হুমকি সৃষ্টি করেছে। কার্বন নির্গমনের পরিমাণকে পণ্য হিসেবে বাণিজ্যে অন্তর্ভুক্ত করা আন্তর্জাতিক অঙ্গনের প্রচলিত ব্যবস্থা। চীনের প্রকৃতি ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লিউ ইউ বিন বলেন,

চীনের কার্বন বাজার শুধু চীনের গ্রিন হাউজ গ্যাস নির্গমন নিয়ন্ত্রণের নীতিগত পদ্ধতিই নয়, বরং তা ব্যাপক উন্নয়নশীল দেশে কার্বন নির্গমনের বাজার স্থাপনে অভিজ্ঞতা দিয়েছে।

সেই সঙ্গে বিশ্বের কার্বন নির্গমনের দাম নির্ধারণ ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। যা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় চীনের সক্রিয় চেষ্টার প্রতিফলন।

তিনি আরও জানান, পরবর্তীতে চীন অব্যাহতভাবে চীনের কার্বন নির্গমন বাজারের আইন ও নীতি ব্যবস্থা সুসংহত করবে, সক্রিয়ভাবে ‘কার্বন নির্গমন ট্রেড পরিচালনা নিয়ম’ প্রণয়ন জোরদার করবে এবং সংশ্লিষ্ট ট্রেড ও প্রযুক্তিগত নিয়ম পূর্ণাঙ্গ করবে। এ ছাড়া, তথ্যের গুণগতমান তত্ত্বাবধান ও পরিচালনার মান বাড়াবে; অবৈধ কাজ হলে শাস্তি জোরদার করবে।

“Green Page” কে সহযোগিতার আহ্বান

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত