30 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
দুপুর ১:৩৫ | ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
জলবায়ু পরিবর্তনের বেশি ক্ষতি হয়ে থাকে স্বল্প আয়ের দেশগুলোতে
জলবায়ু পরিবেশ বিশ্লেষন

জলবায়ু পরিবর্তনের বেশি ক্ষতি হয়ে থাকে স্বল্প আয়ের দেশগুলোতে

জলবায়ু পরিবর্তনের বেশি ক্ষতি হয়ে থাকে স্বল্প আয়ের দেশগুলোতে

বাংলাদেশের মতো স্বল্প আয়ের দেশগুলোতে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতির হার বেশি হয়ে থাকে। উন্নত দেশগুলোয় জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বছরে ১ হাজার ১৩৫ বিলিয়ন ডলারের ক্ষতি হয়। যা তাদের মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) মাত্র শূন্য দশমিক দুই শতাংশ। অন্যদিকে স্বল্প আয়ের দেশগুলোয় বছরে ৪০ বিলিয়ন ডলারের ক্ষতি হয়, যা তাদের জিডিপির প্রায় ৫ শতাংশ।



জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক বিভাগের (ইউএন-ডিইএসএ) ‘বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ও সামাজিক জরিপ (ডব্লিউইইএস)’ প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের আইডিবি ভবনে জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) কার্যালয়ে এই প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়।

প্রতিবেদনের মূল কথা হলো, বৈষম্যের কারণে যেসব মানুষ দরিদ্র জীবনযাপন করে, তারাই আবার জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার হয়।

কারণ অর্থ ও ক্ষমতা না থাকায় উপকূল এলাকা বা নদীর তীর ঘেঁষে বসবাস করে দরিদ্র জনগোষ্ঠী। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে যে প্রাকৃতিক দুর্যোগ হয় তার আঘাত মোকাবিলার শক্তিও তাদের থাকে না।

এবারের প্রতিবেদনের মূল প্রতিপাদ্য ‘জলবায়ু পরিবর্তন’। এ কারণে এর উপশিরোনাম দেওয়া হয়েছে ‘বৈষম্য দূর করার সুযোগ’।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদেরকে সহায়তা করলে তা বৈষম্য দূর করতে ভূমিকা রাখবে। পাশাপাশি দুর্যোগকালে যেমন সবাই তা মোকাবিলার উদ্যোগ নেয়, তেমনটি জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি সমন্বিত উদ্যোগের সুযোগ সৃষ্টি করেছে।

জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) ২টি সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য হলো বৈষম্য কমানো এবং জলবায়ুর পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলা। প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়েছে, ১৯৯৫ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত বিশ্বে ৬ হাজার ৪৫৭টি জলবায়ু পরিবর্তনজনিত দুর্যোগ হয়েছে।

এতে প্রায় ৬ লাখ মানুষ মারা গেছে। ৪২০ কোটি মানুষ বিভিন্ন ভাবে আক্রান্ত হয়েছে। এ ছাড়া জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে অনেক খরচ বেড়েছে। ১৯৮৫ থেকে ১৯৯৪ সময়ে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সারা বিশ্বে খরচ হতো ৬৪ বিলিয়ন ডলার। ২০০৫ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত তা বেড়ে হয়েছে ১৫৪ বিলিয়ন ডলার।

বাংলাদেশে প্রতিবেদনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে ইউএন-ডিইএসএ জ্যেষ্ঠ অর্থনীতিবিষয়ক কর্মকর্তা এস নজরুল ইসলাম বলেন, বহুমাত্রিক বৈষম্য এমন উৎপাদন এবং ভোগকে উসকে দেয়, যা টেকসই নয়। এ ধরনের উৎপাদন আবার জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিও বাড়িয়ে দেয়।



অনুষ্ঠানে ইউএনডিপির এ দেশীয় পরিচালক কিয়োকো ইয়োকোসুকা তাঁদের নতুন একটি গবেষণার তথ্য তুলে ধরে বলেন, উপকূল এলাকার ৯৫ শতাংশ দরিদ্র মানুষ জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার।

প্রতিবছর চার লাখ মানুষ ঢাকায় আসছে, যাদের ৭০ শতাংশ জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার হয়েছে। গভর্নেন্স অ্যান্ড রাইটস সেন্টারের প্রেসিডেন্ট জহুরুল আলম বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দায়ী উন্নত দেশগুলো।

কিন্তু ভুগছে বাংলাদেশের মতো স্বল্প আয়ের দেশগুলো। এ ঝুঁকি মোকাবিলায় তাদের অর্থ দেওয়ার কথা। কিন্তু তারা দিচ্ছে না। অনুষ্ঠানে জাতিসংঘ তথ্যকেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এম মনিরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

“Green Page” কে সহযোগিতার আহ্বান

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত