19 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
সকাল ৬:৩৩ | ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
জবই বিলে পাখিদের ওপর দুর্ভাগ্য
জীববৈচিত্র্য পরিবেশ বিশ্লেষন

জবই বিলে পাখিদের ওপর দুর্ভাগ্য

জবই বিলে পাখিদের ওপর দুর্ভাগ্য

এ বছর শীত এখনো উত্তরবঙ্গে জেঁকে বসেনি। তবে গত কয়েকদিন ধরে উত্তরবঙ্গের সকালগুলো মিলিয়ে যাচ্ছে ঘন কুয়াশার মাঝে। এরই মধ্যে জবই বিলে আসতে শুরু করেছে নানা প্রজাতির অতিথি পাখি।

তার মধ্যে আছে বেশ কয়েক প্রজাতির পরিযায়ী হাঁস। বিলের দক্ষিণের অংশটি পাখিদের কলকাকলিতে মুখরিত। কিন্তু এই পাখিরা হয়তো জানে না খুব শিগগির তাদের দুর্দিন শুরু হবে, চলে যেতে হবে এই জলাভূমি ছেড়ে।

নওগাঁ জেলার সাপাহার উপজেলায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে উত্তরবঙ্গের এক বিশাল প্রাকৃতিক জলাভূমি জবই বিল। বিলটি বর্তমানে খাস জমি হিসেবে উপজেলা প্রশাসনের অধীনে আছে।



স্থানীয়রা বলছেন, বর্ষা মৌসুমে এর আয়তন প্রায় ২ হাজার হেক্টর এবং শুকনো মৌসুমে প্রায় দেড় হাজার হেক্টর। তবে সরকারি হিসাবে এই বিলের আয়তন ৯৯৯ একর বা ৪০৩ হেক্টর।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিলটি ভারতের দক্ষিণ দিনাজপুরের পুণর্ভবা নদী থেকে উৎপত্তি হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। অনেকে বলেছেন, বিলটি জবই গ্রামের কাছাকাছি উৎপত্তি হয়ে ভারত সীমান্তে প্রবেশ করে পুণর্ভবা নদীতে গিয়ে পড়েছে। জবই গ্রামের কাছাকাছি বলে স্থানীয়রা এর নাম দিয়েছেন জবই বিল।

ডুমরইল, বোরা মির্জাপুর, মাহিল ও কালিন্দার মূলত এই ৪টি বিলের সমন্বয়ে এই জবই বিল। প্রায় সারা বছর প্রাণ-প্রকৃতিতে মুখরিত থাকলেও, শীতকালে বদলে যায় বিলের পরিবেশ। নানা প্রজাতির পাখ-পাখালির ডাকে ভিন্ন প্রাণের সঞ্চার হয় বিলটিতে।

প্রাণ-প্রাচুর্যে ভরা এই বিলে প্রতি বছর নভেম্বরের শেষ দিকে আসতে শুরু করে হাজার হাজার শীতের পাখি। দেশীয় নানা জাতের মাছে ভরপুর এই বিলে নিরাপদে থাকতে চায় পাখিরা। কিন্তু বেশি সময় তাদের সেই আশা স্থায়ী হয় না।

ডিসেম্বরের শেষে বা জানুয়ারির শুরুতে হাজার হাজার নৌকা নিয়ে মাছ শিকারে ঝাঁপিয়ে পড়েন স্থানীয় জেলেসহ অন্যান্যরা। যতদিন না মাছ শেষ হয় ততদিন হাজার হাজার নৌকা বিচরণ করে এই বিলে। কয়েক সপ্তাহ থেকে ৬ মাস পর্যন্ত চলতে থাকে মাছ ধরা। ফলে পাখিদের আর নিরাপদে থাকা হয় না। প্রাণভয়ে পালিয়ে যায় হাজার হাজার পাখি।

আমাদের দেশে শীতকালে যে সব পরিযায়ী পাখি আসে, শীত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তারা এ দেশের বিভিন্ন জলাশয়ে অবস্থান করে। কিন্তু জবই বিলের পাখিদের অনেক আগেই চলে যেতে হয়।

পাখিদের এই দুর্দশা দেখে স্থানীয় কিছু শিক্ষিত তরুণ ২০১৮ সাল থেকে গড়ে তুলেছেন জবই বিল জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ও সমাজ কল্যাণ সংস্থা। বর্তমানে এই স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানটির সদস্য সংখ্যা প্রায় ৭০ জন।

জবই বিলের পাখি সংরক্ষণে তারা বিলের চারদিকের ৪টি ইউনিয়নে কাজ করছেন। স্থানীয় প্রশাসন এবং বন বিভাগের সহায়তা নিয়ে চালাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণা। সেই সঙ্গে সচেতনতা তৈরি করছেন এই বিলের উপকারভোগী ৭৯৯ জন জেলেদের মাঝে।



জবই বিল জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ও সমাজ কল্যাণ সংস্থার সভাপতি মো. সোহানুর রহমান সবুজ বলেন, ‘১৯৯০ সালের আগে বিলটি পরিত্যক্ত অবস্থায় ছিল। তখন সেখানে চাষাবাদ হতো না। কচুরিপানায় ভরে থাকত পুরো এলাকা।

তখন সেখানে এই সময় প্রতি বছর লাখ লাখ অতিথি পাখি আসত। কিন্তু যখন থেকে এই বিলে মাছ চাষ শুরু হয়েছে তখন থেকে এখানে পাখি আসা কমে যায়। মাঝখানে অনেকে আবার পাখি শিকার করত। কিন্তু আমরা তাদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছি। এখন পাখি শিকারিদের সংখ্যা প্রায় শূন্যের কোটায়।’

তিনি বলেন, ‘এই বিলের উত্তরে ভারতের কাছাকাছি অনেকগুলো বড় বড় জলাশয় আছে। তাছাড়া আছে পুণর্ভবা নদী। ফলে ওই জলাশয়গুলো, নদী এবং জবই বিলের মধ্যে পাখিদের চলাচলের একটি চ্যানেল তৈরি হয়েছে।

প্রতি বছর শীতকালে হাজার হাজার পাখি এই বিলে আসে। কিন্তু থাকতে পারে না। ডিসেম্বর বা জানুয়ারিতে এই বিলে প্রায় ২ হাজার নৌকা নামে মাছ ধরতে। তখন পাখিগুলো প্রাণভয়ে পালিয়ে যায়।’

জবই বিলে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পাখিপ্রেমীরা আসে পাখি দেখতে। যারা পাখির ছবি তোলেন, তারাও আসেন এখানে। গত বছর একজন পাখিপ্রেমী এবং জবই বিল জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ও সমাজ কল্যাণ সংস্থা ৫ দিনের জরিপ চালিয়ে সেখানে প্রায় ২৮ প্রজাতির ৯ হাজার ৭১২টি পাখির দেখা পান।

এই সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় ২ হাজার বেশি। ২০২০ সালে একই রকমের জরিপে ৭ হাজার ৬৮৩টি পাখির দেখা পাওয়া যায়। এতে বোঝা যায় যে বিলটিতে প্রতি বছরই বাড়ছে পাখির সংখ্যা এবং প্রজাতি।

“Green Page” কে সহযোগিতার আহ্বান

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত