25 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
দুপুর ১২:০০ | ২৩শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে সুন্দরবনের ক্ষতিগ্রস্ত গাছের সংখ্যা ৪ হাজার ৫৮৯
প্রাকৃতিক দুর্যোগ

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে সুন্দরবনের ক্ষতিগ্রস্ত গাছের সংখ্যা ৪ হাজার ৫৮৯

অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় বুলবুল বাংলাদেশ অংশে প্রবেশ করলে সুন্দরবনের কারনে বেশি ধ্বংসযজ্ঞ চালাতে পারেনি তা উপকূলে।সুন্দরবন ঢাল হয়ে রক্ষা করে উপকূলবাসীকে।যার কারনে সুন্দরবনের গাছপালার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।অনেক গাছ উপড়ে গেছে।

বুলবুলের কারণে সুন্দরবনের কীরূপ ক্ষতি হয়েছে, তা নিরূপণ করেছে বন বিভাগ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই প্রতিবেদন বন বিভাগের প্রধান কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।সংশ্লিষ্ট স্টেশন ও ফাঁড়ির সাহায্যে করা ওই জরিপে দেখা গেছে, বুলবুলের প্রভাবে সুন্দরবনে ৪ হাজার ৫৮৯টি গাছ উপড়ে পড়েছে। বন বিভাগের অবকাঠামোগত ক্ষতি হয়েছে ৬২ লাখ ৮৫ হাজার টাকার। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে সুন্দরবনের পশ্চিম বিভাগে। বাংলাদেশ অংশের সুন্দরবনকে পূর্ব ও পশ্চিম—এই দুটি বিভাগে ভাগ করা হয়। সাতক্ষীরা ও খুলনার অংশ পশ্চিম বন বিভাগের আওতায়। আর বাগেরহাট ও বরিশাল অংশ পূর্ব বন বিভাগের মধ্যে।

সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ওই বিভাগে গাছ উপড়ে পড়েছে ৪ হাজার ২টি। আড়পাঙ্গাশিয়া ও শিবসা নদের দুই পাড়ের গাছ বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন বিভাগ থেকে আর্থিকভাবে ওই গাছের টাকার পরিমাণ ধরা হয়েছে ৪১ লাখ ৭৩ হাজার টাকা। ওই বন বিভাগের বিভিন্ন ফরেস্ট অফিসের ক্ষতির পরিমাণ ২৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা।

পশ্চিম বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা বশির আল মামুন বলেন, ক্ষতির ধরন দেখে মনে হয়েছে ঝড় ওই দুই নদীর পাড়ে বেশি আছড়ে পড়েছে। তবে ঝড়ের সময় জলোচ্ছ্বাস না থাকায় কোনো বন্য প্রাণীর ক্ষতি হয়নি বলে মনে করছেন তাঁরা।

ঝড়ে পূর্ব বন বিভাগে গাছ উপড়ে পড়েছে ৫৮৭টি। ওই গাছের আর্থিক মূল্য ধরা হয়েছে ৮ লাখ ৬২ হাজার টাকা। অন্যদিকে বন বিভাগের অবকাঠামোগত ক্ষতি হয়েছে ৩৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা। ওই বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান প্রথম আলোকে বলেন, ঝড়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে পশ্চিম বিভাগে। যে গাছ পড়ে গেছে তার বেশির ভাগই স্টেশন ও ফাঁড়ির। তবে কিছু জেটি ও ওয়াচ টাওয়ার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অনেক স্টেশন ও ফাঁড়ির অবকাঠামো নষ্ট হয়ে গেছে।

বন বিভাগের খুলনা সার্কেলের প্রধান বন কর্মকর্তা মো. মঈনুদ্দিন খান বলেন, ঝড়ের পর বন বিভাগে কর্মরত স্টেশন ও ফাঁড়ির কর্মকর্তাদের ক্ষতির পরিমাণ যাচাইয়ের নির্দেশ দেওয়া হয়। সংশ্লিষ্ট বন বিভাগ ওই ক্ষতির তথ্য নিয়ে যাচাই করে সার্কেল অফিসে জমা দেয়। পরে ওই প্রতিবেদন প্রধান কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত