27 C
ঢাকা, বাংলাদেশ
সন্ধ্যা ৭:১৩ | ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
গ্রীন পেইজ
ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (EU) এর পূনরুদ্ধার কর্মসূচী জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়েছে
গ্রেটা থুনবার্গ রাহিল খান

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (EU) এর পূনরুদ্ধার কর্মসূচী জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়েছে

গ্রেটা থুনবার্গ বলেছেন যে – “ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (EU) এর পূনরুদ্ধার কর্মসূচী জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়েছে”

রাহিল খান

জলবায়ু কর্মী বলেছে, ৭৫০ বিলিয়ন ইউরো পুনরুদ্ধার তহবিল দেখলে মনে হয় যে বিশ্বব্যাপী উত্তাপকে ইউরোপীয় নেতারা জরুরী হিসেবে দেখছেন না ।
গ্রেটা থুনবার্গ এর মতে: ‘যতক্ষণ পর্যন্ত জলবায়ু সংকটকে সঙ্কট হিসাবে বিবেচনা করা হবে না ততক্ষণ পর্যন্ত প্রয়োজনীয় পরিবর্তনগুলো ঘটবে না।’ ছবি: জোহানা গেরন / রয়টার্স
গ্রেটা থুনবার্গ এর মতে: ‘যতক্ষণ পর্যন্ত জলবায়ু সংকটকে সঙ্কট হিসাবে বিবেচনা করা হবে না ততক্ষণ পর্যন্ত প্রয়োজনীয় পরিবর্তনগুলো ঘটবে না।’ ছবি: জোহানা গেরন / রয়টার্স

গ্রেটা থুনবার্গ ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (EU) এর রাজনীতিবিদদের জলবায়ু সঙ্কটের মাত্রা অনুধাবন করতে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ তুলেছেন এবং বলেছেন ৭৫০ বিলিয়ন ইউরো কোভিড-১৯ পুনরুদ্ধারের পরিকল্পনাটি সমস্যা মোকাবেলায় যথেষ্ট নয়।

জলবায়ুর পরিবর্তন প্রতিরোধের প্রচারক বলেন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (EU) নেতাদের দ্বারা সম্মত পদক্ষেপ প্যাকেজ গুলো প্রমাণ করেছে যে রাজনীতিবিদরা এখনও জলবায়ু পরিবর্তনকে জরুরি হিসাবে বিবেচনা করছেন না।

গ্রেটা থুনবার্গ গার্ডিয়ানকে বলেছেন, “তারা এখনও সত্যটি অস্বীকার করছে এবং আমরা যে জলবায়ু জরুরী অবস্থার মুখোমুখি হয়েছি তা উপেক্ষা করছি এবং জলবায়ু সঙ্কটকে এখনও একবারও সঙ্কট হিসাবে দেখানো হয়নি। “যতক্ষণ জলবায়ু সংকটকে সঙ্কট হিসাবে বিবেচনা করা হবে না ততক্ষণ প্রয়োজনীয় পরিবর্তনসমূহ ঘটবে না।”

২১ শে জুলাই ২০২০ তারিখে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (EU) নেতারা পুনরুদ্ধার তহবিলের বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছেছে এবং প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যে প্যাকেজের ৩০% জলবায়ু নীতিমালার দিকে যাবে, কিন্তু এই বিষয়ে তেমন বিবরণ দেওয়া হয়নি ।

১৭ বছর বয়সী গ্রেটা থুনবার্গ, এবং ইউরোপ জুড়ে স্কুল ধর্মঘটের আন্দোলনের অন্যান্য নেতারা বলেছেন, প্যাকেজটি অপর্যাপ্ত ।

জার্মানির স্কুল ধর্মঘট আন্দোলনের কেন্দ্রীয় ব্যক্তিত্ব, ২৪ বছর বয়সী লুইসা নিউবাউয়ের বলেছেন তরুণরা রাজনীতিবিদদের প্রতি ক্রমশ হতাশ হয়ে পড়ছে।

নিউবাউয়ের বলেন, “আমরা আমাদের নেতাদের সর্বাধিক মৌলিক বিষয়টির যত্ন নিতে বলছি: আমাদের নিরাপত্তা, বিশ্বজুড়ে মানুষের সুরক্ষা, আমাদের ভবিষ্যতের সুরক্ষা। আপনি গণতান্ত্রিক পর্যায়ে উদ্বেগজনক হবেন যখন আপনি এ জাতীয় উল্লেখযোগ্য বিষয় জিজ্ঞাসা করেন যা সুস্পষ্ট বলে মনে হয় এবং তবুও আপনি দেখতে পান যে, নেতারা কিভাবে এটি ব্যাপকভাবে উপেক্ষা করছেন, বা অন্যান্য বিষয়সমূহের মতো গুরুত্বপূর্ণ হিসাবে বিবেচনা করছেন না।”

বেলজিয়ামের আরেক নামী স্কুল ধর্মঘটী ১৯ বছর বয়সী অ্যাডালেড চাৰ্লিয়ার বলেছেন, জরুরি নীতিমালা গ্রহণ না করে জলবায়ু কর্মের ভাষা গ্রহণকারী রাজনীতিবিদরা জলবায়ু অস্বীকারকারীদের চেয়ে খারাপ।



তিনি বলেন, ”নেতারা যখন জলবায়ু সংকট মোকাবেলাকে হ্রাস করেন, তখন আমি মনে করি যে নেতারা এটিকে একেবারেই অস্বীকার করছেন। তার চেয়ে এটি আরও বিপজ্জনক, কারণ তখন আমরা আসলে অনুভব করি যে

আমরা তাদের উপর নির্ভর করতে পারি এবং আমরা আসলে সঠিক পথে আছি এবং এটি বিপজ্জনক এবং ভুল।”

এই দলটি ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (EU) নেতাদের কাছে একটি উন্মুক্ত চিঠি লিখেছে যেখানে তারা জলবায়ু সঙ্কটের সবচেয়ে খারাপ প্রভাব এড়াতে অবিলম্বে কাজ করার দাবি জানিয়েছে।

গ্রেটা থুনবার্গ চিঠিতে জলবায়ু ‘অস্তিত্বের সঙ্কট’ নিয়ে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (EU) এর পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন।

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞানীরাসহ ৮০,০০০ লোক স্বাক্ষরিত এই চিঠিতে যুক্তি দেওয়া হয়েছে যে কোভিড – ১৯ মহামারীটি দেখিয়েছে যে বেশিরভাগ নেতা দ্রুত এবং সিদ্ধান্ত নিয়ে কাজ করতে সক্ষম হন যখন তারা মনে করে ইহা জরুরী, তবে জলবায়ু পরিবর্তনের জরুরি বিষয়টি তারা অনুধাবন করতে এবং এ বিষয়ে কাজ করতে তারা ভূল করেছে।

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে “এটা এখন আরও স্পষ্ট যে জলবায়ু সংকটকে কখনই সঙ্কট হিসাবে বিবেচনা করা হয়নি, রাজনীতিবিদ, মিডিয়া, ব্যবসা বা অর্থের দিক থেকেও নয়। এটি আর বলার অপেক্ষা রাখে না যে আমরা কার্বণ নিঃসরণ হ্রাস করার নির্ভরযোগ্য পথে আছি এবং জলবায়ু বিপর্যয় এড়াতে প্রয়োজনীয় ক্রিয়াসমূহ আজকের ব্যবস্থায় উপলব্ধ রয়েছে … আমরা আরও মূল্যবান সময় হারাব, ” ।

চিঠিতে যুক্তি দেওয়া হয়েছে যে জলবায়ু ও পরিবেশগত জরুরী সমাধান কেবলমাত্র “আমাদের আধুনিক বিশ্বের ভিত্তি স্থাপনকারী সামাজিক এবং জাতিগত অবিচার ও নিপীড়ন” মোকাবেলায়ই সম্ভব।

এই বছরের শুরুর দিকে সমৃদ্ধি হ্রাস না করে এবং জনগনের জীবনযাত্রার মান ঠিক রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়ে উচ্চ-কার্বন নি:সরণ হতে নিম্ন-কার্বন নি:সরণ অর্থনীতিতে পরিবর্তিত হওয়ার লক্ষে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (EU) তার নতুন সবুজ চুক্তির প্রস্তাব উন্মোচন করেছে (unveiled its green new deal) । জলবায়ু ধর্মঘটিরা ২০৫০ সালের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেট শূন্য কার্বণ নির্গমনের লক্ষ্যটিকে বিপজ্জন উচ্চ বিলাস বলে প্রত্যাখ্যান করেছে।

গ্রেটা থুনবার্গ, যিনি গত কয়েকদিন পূর্বে “মানবতার জন্য পর্তুগালের গুলবেঙ্কিয়ান” পুরস্কার পেয়েছেন এবং পরিবেশ রক্ষায় ও জলবায়ু পরিবর্তন রোধে কাজ করা গোষ্ঠীগুলিকে এক মিলিয়ন ইউরো (১.১৫ মিলিয়ন ডলার) পুরষ্কারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তিনি বলেছেন, যে সাধারণ মানুষ সোচ্চার হবে এবং রাজনীতিবিদরা প্রতিরোধের মূখোমুখি হবে।

গ্রেটা থুনবার্গ বলেন, “আমি গণতন্ত্র ও মানুষের মধ্যে আশা দেখছি। যদি লোকেরা যা ঘটছে সে সম্পর্কে সচেতন হয়ে ওঠে, তবে আমরা যে কোনও দাবী আদায়ের জন্য সোচ্চার হয়ে উঠতে পারি। আমরা অনেক সহ্য করেছি… যদি আমরা কেবল সিদ্ধান্ত নিই যে, আমরা ক্ষমতায় থাকা লোকদের উপর চাপ প্রয়োগ করতে পারি, তখন সবকিছু বদলে দেবে।”

Source: The Guardian

“Green Page” কে সহযোগিতার আহ্বান

সম্পর্কিত পোস্ট

Green Page | Only One Environment News Portal in Bangladesh
Bangladeshi News, International News, Environmental News, Bangla News, Latest News, Special News, Sports News, All Bangladesh Local News and Every Situation of the world are available in this Bangla News Website.

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই স্কিপ করতে পারেন। গ্রহন বিস্তারিত